খুকীর আবদার

play icon Listen to this article
0

চার বছরের খুকী ঘুমায়

মা’র গল্প শুনে–

ঘুমিয়ে পড়ে, স্বপ্ন দেখে

বাবাকে পড়ে মনে।

মাথার উপর মাঝ দেয়ালে

টাঙ্গানো বাবার ছবি

মা বলেন- ‘সে মস্ত মানুষ

তা-র মতন হবি?’

কোথায় আছে বাবা আমার

বলোনা একটি বার–

এনে দিলে তোমায় দেব

পুরো –পুতুলের সংসার।

খেলনা, জামা, গাড়ী, জুতো

সব নিয়ে যাও তুমি,

যেতে দিলে এক্ষুনি যাই

বাবার কাছে আমি।

চাই না চুড়ি, রঙিন ফুলে

যাবো না ঘরের বার,

একটি বার রাখ কেবল,

আমার এ আবদার।

সাথীর বাবা ব্যবসা করে

মস্ত বড় লোক,

বাবা আমার ফ্রেমে বাধা

কেমন মলিন মুখ!

আনু কেবল বিদেশ ঘোরে

ক-ত ছবি তোলে–

বাবার কাঁধে সফর করে

শীতের ছুটি এলে।

আমার ছুটি টিভি দেখে

মোবাইল গেমে কাটে,

মায়ের কোন নেই অবসর

ঘরে বাইরে ছুটে।

ছবির বাবা ভাল্লাগেনা

কেনই বা গেছে ফেলে?

আসলে পরে বলব তারে

কোথায় লুকিয়ে ছিলে?

ঘুমিয়ে রাতে স্বপ্নে দেখি

আমি বাবার কোলে–

জড়িয়ে গলা ঘুরে বেড়াই

ফিরি সন্ধ্যা হলে।

আমি যদি স্কুলে যাই

আর না তোমার সাথে–

শর্ত শুধু বাবা যাবে

ধরবে আমার হাতে।

মাঝে মাঝে আনমনা মা

যাই না তখন কাছে–

উদাস চোখে বাইরে দেখে

আঁচলে চোখ মুছে।

কি হয়েছে চুপ কেন গো

করেছ অভিমান?

বলবনা আর বাবার কথা

এই ধরেছি কান !

খুঁজবনা আর ছবির মানুষ

ভাববনা এসব আর

নামিয়ে ফেল ফ্রেমটা এবার

থাকব নির্বিকার।

বলব না আর বাবার কথা

খাবোনা তোমার হাতে–

তোমার সাথে অনেক হোল

এবার ঘুমাই বাবার সাথে।

খুকী দেখে চাঁদের পানে

ধূসর মেঘের কোলে–

হারিয়ে যাওয়া বাবার খুঁজে

বালিশ ভিজে জলে।

 

আরো পড়ুন-

0

MD MOINUL ISLAM

Author: MD MOINUL ISLAM

Related Posts

শ্যামা মা তুই কত দয়াময়ী

শ্যামা মা, তুই কত দয়াময়ী- তোর কথা ভেবে আমি হয়েছি বিবাগী তাই। আমার নিজের প্রতি নেই রে মোহ আর- আমি

জাতির জনক

হয়েছি মোরা অত‍্যাচারিত হয়েছি অনেক লাঞ্চিত পরাধীনতায় কাটিয়েছি জীবন হয়েছি মোরা বঞ্চিত পাক সেনারা বাংলার মায়েদের করতো নির্যাতন তাদের অত‍্যাচারে

প্রভু, শান্তি কোথা পাই

প্রভু শান্তি কোথা পাই এ যে অশান্তির মন্ডল। শান্তি যে কোথাও নাই।। জীবন গ্রাসে তীব্র আশে স্বপ্ন মরে দিনে দিনে।।

তুমি আর আমি

তুমি আর আমি,একই সুতোয় গাঁথা বিধাতার সংস্পর্শে, হয়েছি, কবিতার পাতা তুমি আর আমি,একই গানের সুর বিধাতার সংস্পর্শে, দু'জন মিলে হারায়

Leave a Reply