বিড ছাড়া মার্কেটপ্লেসে কাজ

বিড ছাড়া ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কাজ পাওয়ার সহজ পদ্ধতি

বিড ছাড়া যদি আপনি  ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কাজ পেতে চান তাহলে এই লেখাটি পুরোটা মনোযোগ দিয়ে পড়ুন। আমি তাদের জন্য এই লেখাটি লিখছি যারা আপওয়ার্ক, ফ্রিল্যান্সার এইসব সাইটে নিয়মিত কাজ করেন। যারা ফাইভারে একটিভ তাদের জন্যও এই লেখাটি উপকারী হবে বলে আশা করছি। আর যারা এইসব সাইটে অনেক চেষ্টা করেও কাজ জুটাতে পারেননি কিংবা, পেলেও সেটা নিয়ে সন্তুষ্ট নন তারাও এই লেখাটি পড়ুন, কাজে লাগবে।

ফ্রিল্যান্সিং জব কেমন হয়?

আপওয়ার্ক বা, ফ্রিল্যান্সার ডট কমে যেটা হয় সেটা হচ্ছে যার কাজ করার লোক লাগবে সে ঐ সাইটে তার কাজের বিবরণ দিয়ে একটা পোস্ট পাবলিশ করেন। ঐ কাজে যারা দক্ষ তারা তখন সেই কাজ পাওয়ার জন্য বিড করেন। সেখান থেকে ঐ ব্যক্তি বা, প্রতিষ্ঠান তার প্রয়োজন মতো কেউ একজনকে কাজটা দেয়। মার্কেটপ্লেস থার্ড পার্টি হিসবে ঠিকমতো টাকা পেতে সাহায্য করে। বিক্রেতা এবং ক্রেতাকে এক জায়গায় জড়ো করে এবং সবার জন্য সুবিধাজনক পরিবেশ তৈরি করে দেয়।

আমি দুটি ওয়েবসাইটের কথা বলতে যাচ্ছি যেখানে বিড করা লাগে না। সেখানে যারা নিজেদের সার্ভিস বিক্রি করবেন অর্থাৎ, ফ্রিল্যান্সাররা তাদের সার্ভিসের বর্ণনা লিখে সেটা পাবলিশ করে দেন। এরপর যারা সেটা কিনবেন তারা ঐ বর্ণনা,  ফ্রিল্যান্সারের কাজের রেটিং আর কাজের মূল্য দেখে নিজেদের জন্য সুবিধাজনক সার্ভিসটা কিনে নেন। দুই ধরণের ফ্রিল্যান্সিং সাইটেই দক্ষ ব্যক্তিরা বেশী আয় করতে পারেন।

কোন কোন সাইটে বিড ছাড়া এই ধরণের জব পাবো?

এরকম কাজ পাওয়ার সেরা সাইট হচ্ছে- Fiverr, Legiit, Seoclerks ইত্যাদি। আমি ফাইভার নিয়ে বেশী কিছু বলবো না, seoclerks নিয়ে বলবো। এই সাইটের মালিক Ionicware. এদের সাইটে একটি একাউন্ট থাকলে চারটা সাইট ব্যবহার করা যায় সার্ভিস বিক্রি এবং কেনার জন্য। চারটি সাইট হচ্ছে-

  1. Seoclerks
  2. Designclerks
  3. Listingdoc
  4. Wordsclerks

(এই সাইটগুলোতে সার্ভিসের দাম কম হওয়ায় অনেক সহজে বিক্রি করা যায় )

নামেই বুঝতে পারছেন চারটি সাইট চার ধরণের কাজের জন্য- এস ই ও, ডিজাইন, লিস্টিং আর, লেখালেখি। প্রথমটাই সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং এখানে সব ধরণের সার্ভিস বিক্রি হয়। সুবিধা হচ্ছে $1 এ সার্ভিস বিক্রি করা যায়, কেনাও যায়। আবার $100 এর বেশী দামের সার্ভিসও আছে যেগুলো আসলেই ঐ প্রাইস ডিজার্ভ করে। আপনারা যারা নতুন একাউন্ট খুলবেন তারা সম্ভবত সর্বনিম্ন $5 এর সার্ভিস বিক্রি করতে পারবেন।

টাকা কিভাবে পাবোঃ টাকা পাওয়া নিয়ে ভাবতে হবে না, পেপাল ওদের প্রথম পছন্দ হলেও Payoneer এ ওরা টাকা দেয়। বাংলাদেশ থেকে Payoneer এ ফ্রি একাউন্ট খোলা যায়, যাদের নেই তারা একাউন্ট খুলে নিন। একাউন্ট  পরে ভেরিফাই করে নেবেন নিজের আসল নাম, ঠিকানা আর আসল আইডি কার্ড দিয়ে। Payoneer নিয়ে আরেকদিন লেখা যাবে। পেওনিয়ারে টাকা পেলে সেটা বাংলাদেশী ব্যাংকে আনা যাবে, কোন সমস্যা হবে না।

 কি ধরণের ফ্রিল্যান্সিং জব পাবো?

বিভিন্ন ধরণের সার্ভিস বিক্রি করতে পারেন। সবচেয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে- ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক তৈরি, গুগোল সার্চে ওয়েবসাইটকে প্রথম পেজে আনা, ওয়েবসাইট ট্রাফিক, ইউটিউব ভিডিও ভিউ, এস ই ও, ওয়েবসাইট ডিজাইন, আর্টিকেল লেখা, অন পেজ এস ই ও ইত্যাদি। নিজেদের নামের সাথে ওরা দুটি  বিশেষণ ব্যবহার করে যা সত্যি-  Largest SEO Marketplace on the planet, Largest Webmaster Marketplace in the World. কথা সেটা না, কথা হচ্ছে কাজ কিভাবে সহজে পেতে পারি।

কাজ পাওয়ার পরামর্শঃ প্রথমে Seoclerk ওয়েবসাইটে একাউন্ট খুলে নেবেন। আপনি যা করতে চান সেটা লিখে সার্চ দিবেন রেটিং অনুযায়ী সিলেক্ট করে। যেমন মনে করুন $5 এ ৮০ টি High DA Backlink বিক্রি করবেন। ঐটা লিখে সার্চ দিবেন “80 High DA backlink” এরপর Rating  সিলেক্ট করবেন।

এখন সেরা পাঁচটি কাজের বর্ণনা পড়ে দেখুন। তারা যা দিচ্ছে নতুন হিসবে আপনাকে তার চেয়ে বেশী কিছু দিতে হবে। যেমন ওরা যদি ৫ ডলারে ২৫ টি ওয়েব ২.০ ব্যাকলিংক দেয়, আপনাকে দিতে হবে ৩০ টি। এরকম ভালোভাবে লিখে সার্ভিস সাবমিট করুন। পাবলিশ হলে সবাই দেখতে পাবে। সব বর্ণনা থাকলে আর কপিরাইট ফ্রি ছবি থাকলে সব সার্ভিস পাবলিশ হবে। কয়েকটা সার্ভিস পাবলিশ করে তারপর Boost করুন। এই সাইটেই ফ্রি Boost এর অপশন আছে, প্রতিদিন কয়েকটা ফ্রি বুস্ট ব্যাবহার করা যায়। টাকা থাকলে কিনে Paid Boost ও দিতে পারেন। আর আমাদের এই ওয়েবসাইটে, যেখানে আপনি এই লেখা পড়ছেন- এখানে প্রশ্ন করার অপশন আছে। আপনি সমস্যায় পড়লে প্রশ্ন করতে পারেন,  প্রশ্ন করলে আমি যত দ্রুত সম্ভব তার উত্তর দেবো।

মেনুতে Seller, Sell, Sell a service থেকে সার্ভিস তৈরি করা যাবে। আর, প্রফাইল, সেটিং এগুলোতে কি কি করা লাগবে এগুলো আপনি জানেন বলেই ধরে নিচ্ছি। আরো পড়তে পারেন- গুগল এডসেন্স পাওয়ার সহজ উপায়- ইউনিক আর্টিকেল লিখুন

 

আপনি কি অন্য সাইটে নিয়মিত কাজ করেন?

কেউ যদি এই লেখাটি পড়ে থাকেন যিনি বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং বিভিন্ন কাজ করেন আপনার এই কাজের সহকারী লাগবে বা, আরো কম টাকায় যদি কিছু কাজ করিয়ে নেয়া যায় তাহলে ভালো হয়। এখান থেকে সার্ভিস কিনতে পারেন। ওয়েবসাইট রিলেটেড সব ধরণের সার্ভিস কিনতে পারবেন, ওয়েব ডেভেলপারও পাবেন। প্রগ্রামিং ও করাতে পারবেন। এখনো যদি একাউন্ট না খুলে থাকেন-

Seoclerks এ একাউন্ট খুলুন

যেকোন ধরণের সমস্যায় এখানে কমেন্ট করুন, এই সাইটে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করেন। আপনাকে সাহায্য করা হবে। আবারো বলছি এখানে সার্ভিস বিক্রি করা বা, কেনার আগে ভালোভাবে এনালাইসিস করে নেবেন। তাহলে এই সাইটের সুবিধাটা উপভোগ করতে পারবেন।

(Visited 17 times, 1 visits today)
0
likeheartlaughterwowsadangry
0

Related Posts

ইউটিউব কি

ইউটিউব কি- আশ্চর্যজনক হলেও অনেকেরই ভুল ধারণা আছে

ইউটিউব কি? ইউটিউব কি- একবাক্যে যদি এই প্রশ্নের উত্তর দিতে হয় তাহলে বলতে হবে এটি একটি অনলাইন ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম

বাংলা আর্টিকেল রাইটিং পেশা হতে পারে!

অনলাইনে বাংলা আর্টিকেল লিখে আয় করার নানারকম পদ্ধতি আছে। বিভিন্ন সাইট থেকে গল্প, কবিতা লিখেও আয় করা যায়। আবার, নিজের
অনলাইনে পড়াশোনা

অনলাইনে পড়াশোনা করুন ঘরে বসেই সম্পূর্ণ ফ্রিতে

অনলাইনে পড়াশোনা করাটা এখন খুব একটা কঠিন কাজ না। পৃথিবীর সেরা বিশ্ববিদ্যালয়, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং সংস্থাগুলো অনলাইনে পড়ালেখা করা যায়
জনপ্রিয় ওয়েবসাইট

বাংলাদেশের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট গুলোর নাম

বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইটগুলোর নামের কোন তালিকা অনলাইনে পাওয়া যায় না যেখানে সবগুলো সাইট এখন ভিজিট করতে পারবেন। এখানে আমি

Leave a Reply