এক গুচ্ছ কামিনী

1এখনি যেও না চলে একটু দাড়াও হে রমনী, ভালোবেসে হাতে দেব তুলে এক গুচ্ছ কামিনী। এখনি যেও না ফেলে নামবে হৃদয়ে যামিনী, মাত্র সবে তো এলে প্রিয়া অমার সজনী। তুমি পাশে আছো বলে মুখরিত লাগে এই ধরণী, সুগন্ধ বাগিচায় ফুলে সুবাস বিলায় চামেলী। তুমি পাশে আছো বলে আলোকিত এই রজনী, জোছনা বিলায় চাঁদ ভুবন ভোলানো

স্বপ্ন গুলো বাক্স-বন্দী

0স্বপ্ন গুলো বাক্স-বন্দী কলমের কালি আজও ফুরাইনি শুধু সময় পাল্টেছে কবিতা গান আরো কত হাবিজাবি যা ইচ্ছে তাই লেখা থাকতো স্বপ্ন নামক ডাইরিতে হাজারো রঙিন স্বপ্ন সাজানো হতো প্রতি রাতে শুধু সময় পাল্টেছে আজ ঠিক আছে কাল আরো ভালো হবে নয়ত পরশু আমি ঠিকই পারব অথবা দুইদিন বাদে আমায় সবাই চিনবে শুধু সময় পাল্টেছে দীর্ঘদিনের

আবার হবে দেখা

0লিখলাম যত গান লিখলাম যত কবিতা একদিন তো হারিয়ে গেলে দিলে না তো আর দেখা, শুধু একটি কাগজে লিখেছিলে আবার হবে দেখা। সেই থেকে আজ আঠারো বছর তোমার জন্য করছি অপেক্ষা কত বৈশাখ গেল কত শ্রাবন আসিলো এত কাল পরেও পেলাম না তোমার দেখা। কত সৃস্তি মোনে পড়ে ক্ষনিকের সেই জিবন চলায় আজ আমি একা

‘’অচেনা পথিক’’

0“পথিক তুমি চলেছ কোথায় কোন পাড়াতে ঘর, একটু জিরোও, পথ বন্ধুর কে বা আপন,পর?   স্রোতস্বিনী নদীর মত চলছি অবিরাম– আজন্ম মোর এই নিয়তি বলছ কেন থাম?   ‘’কে তুমি পথিক মুখ চিনিনা কাদের বাড়ী যাবে—‘’ ঘর চিনিনা, যাই বহুদুর পথেই আমায় পাবে।   যুগ যুগান্তর সকল কালে আমার বিচরন, এই পৃথিবীর জন্ম হতে চলছে

এখন ও কি…

0  দূর প্রবাসে পাঁচটি বছর যুগের মত লাগে, অর্থবিত্তে ভালই আছি তরল ভাবাবেগে।   অট্রালিকা, উঁচু দালান আকাশ অনেক দূরে– বাদ্য বাজনা, আলোর ঝলক চলছে সপ্তসুরে।   নির্ঘুম এই শহর বুঝি অনেক কথাই বলে, সবই আছে, কি যেন নেই মন কি চায় তা হলে?   নিশীথ রাতে চোখ বুঁজলে কাঁদার গন্ধ পাই– মাটির চুলায় মায়ের

কবিতা – ভালোবাসার অনুভূতি

0ভালোবাসার অনুভূতি  — আলী সোহেল — আবার দেখা হলে চোখে চোখ রেখে বলবো ভালোবাসি। সেদিনের সেই অনুভূতি গুলো মনের কোনে ছবি আঁকবো, কি অপরুপ দৃশ্য আমার হাতের স্পর্শ গুলো বিলিয়ে দেবো তোমার সারা অঙ্গে। আবার দেখা হলে হাতে হাত রেখে বলবো ভালোবাসি। সবার মতো করে তোমায় চেয়ে নেবো কোন এক চাঁদনি রাতে। যা কিছু দেওয়ার

কবিতা – বুকের ব্যাথা

0  বুকের ব্যাথা  মোঃ আলী সোহেল কার সাধ্য আছে তোমাকে বুঝার তোমাকে চিনার মত কেও কি আছে? আমি আর কত কাল তোমাকে সইবো বুকের ভিতর ক্ষত ছিহ্ন বইয়ে বেড়াবো? তোমাকে না চিনার কষ্ট বয়ে যাবো – প্রতিদিন এক বেলা তোমার অবহেলা সইতে না পেরে বুকের ভেতর কষ্ট গুলো জমা করে নিঃশব্দে কেঁদেছি অবেলা, বিরহের জ্বালা,

বলোনা…..

0 জানালার বাইরে চাঁদটা দেখে মনে পরছে তোমায় বলোনা কেমন আছো …কোথায় কি করছ এখন জানতে ইচ্ছে হয় চায়ের কাপে চুমুক দিয়ে মনে পরছে তোমায় আড্ডার ফাঁকে সময় পেয়ে মনে পরছে তোমায় পুরোনো সব স্মৃতিগুলো মনে পরে যায় চোখের পাতায় আলতো ভাবে জল এসে যায় বলোনা কেমন আছো …কোথায় কি করছ এখন জানতে ইচ্ছে হয়