উদ্ভট বই

বাংলাদেশের বইমেলার উদ্ভট যত বই

play icon Listen to this article
0

বইমেলা ২০২১ এ অনেক নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে, প্রতিবছরই প্রকাশিত হয়। আজকের এই লেখাটিতে কিছু উদ্ভট নামের বই সম্পর্কে বলার চেষ্টা করবো।  প্রতিবছর ফেব্রুয়ারি মাসে অমর একুশে গ্রন্থমেলা অনুষ্ঠিত হয় বাংলা একাডেমীর বর্ধমান হাউজ প্রাঙ্গনে।

এছাড়া বাংলা একাডেমী প্রাঙ্গনেও বইয়ের মেলা বসে। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের রাজধানী কলকাতায় প্রতিবছর আয়োজিত হয় আন্তর্জাতিক কলকাতা পুস্তকমেলা। ১৯৭৬ সালে থেকে এটি চলে আসছে যা কলকাতা বইমেলা নামেও পরিচিত।

বইমেলাতে আলোচিত উদ্ভট নামের কিছু বই

হয়তো পাঠকদের আকৃষ্ট করতেই নতুন লেখকেরা নানারকম পদ্ধতি অবলম্বন করেন। এর মাঝে সবচেয়ে কার্যকর এবং জনপ্রিয় পদ্ধতি হচ্ছে, এমন সব নাম দেয়া যেসব নামের কারণে সবার কাছে নামগুলো পৌছে যায়। চলুন বিগত বছরগুলোতে প্রকাশিত এরকম কিছু নাম দেখে নেই-

  • ফারিয়া মুরগীর বাচ্চা গলা টিপে টিপে মারে
  • ভাইরে, আপুরে !!!
  • ভাল্লাগে না
  • প্যারাময় লাইফের প্যারাসিটামল
  • সৃজিত মুখার্জির নাম কি
  • রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেন নি
  • দুধ চা খেয়ে তোকে গুলি করে দেব

(আমাকে গালি দিবেন না, কিছু ভালো বইও আছে তালিকায়, এখানে আকর্ষণীয় নাম তুলে ধরেছি, বাজে বই নয়)

এইসব বই পড়ার সৌভাগ্য আমার হয় নাই, এইসব বই কেনার টাকা নাই,  কেউ যদি এর মধ্যে কোন বই গিফট করতে চান, নিচের কমেন্ট বক্সে জানাবেন। একটি বইয়ের খোজ নিয়েছিলাম, সেই অভিজ্ঞতার কথা আপনাদেরকে বলছি-

ফারিয়া মুরগীর বাচ্চা গলা টিপে টিপে মারে- মেহেদী উল্লাহ

“ফারিয়া মুরগীর বাচ্চা গলা টিপে টিপে মারে”- এরকম উদ্ভট নামের কারণেই হয়ত এই বইটি নিয়ে প্রচুর আলোচনা হচ্ছে। এই বইটি নিয়ে জানার জন্য আমি গুগোলের শরণাপন্ন হয়েছিলাম। গুগোল আমাকে Goodreads, মানবকন্ঠ, যুগান্তর এবং রকমারি থেকে কিছু লেখা দেখালো। দেখে যারপরনাই আনন্দিত হলাম।

ফারিয়া কিভাবে মুরগীর বাচ্চা গলা টিপে টিপে মারে?

এই প্রশ্নের উত্তর জানতে হলে আপনাকে বইটি কিনতে হবে। আমি বইটি পড়ি নাই, কেনার টাকা নেই বলে। প্রথমেই Goodreads এ ঢুকলাম, সেখানে দেখি- মেহেদী উল্লাহ নামে একজন ব্যক্তি বইটির লেখক এবং এটি ৩ তারকা খচিত। একজন রেটিং দিয়েছে ৪ স্টার, আরেকজন দিয়েছেন ২ স্টার– সব মিলিয়ে এই দুইটাই রেটিং। এটা থেকে ধারণা পাওয়া সম্ভব না। এরপর মানবকন্ঠে একজন পাঠক তার পাঠ প্রতিক্রিয়া দিয়েছে দেখলাম।

না, আমার পক্ষে এই প্রতিক্রিয়া পড়ে কিছু বোঝা সম্ভব হল না। একটা লাইন Quote করি- “পাঠক ভাবতেই, একটু অবাক হবে যে, তারা কিছুক্ষণ রাজনৈতিক বিষয়ে পড়লেন ; তবু কোথায় যেন একটা প্রেম প্রেম ভাব ছিলো’—“অথচ খুব জরুরি প্রশ্নটার আকাল চলছে দেশে””। যুগান্তরে পুরো গল্পটাই সংক্ষেপে পাবেন রিভিউ এর নামে। আমার ধারণা এটা মেহেদী উল্লাহ নিজেই লিখেছেন। হ্যাঁ- লেখক হিসেবে তো তার নামই লেখা।

আরো একটু মজা পেলাম

ভাবলাম বইটা কেনা যেতে পারে। রকমারিতে ঢুকে দেখি এই বইটার কাস্টমার রিভিউ ৫ স্টার। আহা কি আনন্দ- কত ভালো মাণের হলে ৫ স্টার একটা বই পেতে পারে ভাবুন। এরপর “নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ” হলো। লেখক নিজেই রিভিউ দিয়েছেন এবং খুব সুন্দর করে, বড় করে কাস্টমার রিভিউ লিখেছেন।

নূরানী জান্নাত নামের একজন পাঠক লেখকের ঐ রিভিউ এর নিচে যেটা লিখেছেন, সেটাতে আমি সত্যিই কষ্ট পেয়েছি। উনি লিখেছেন- “বইটা পড়ে মনে হচ্ছে সত্যিই লেখকের বাচ্চাকে গলা টিপে মারি”। কষ্টটা এই কারণে লাগলো যে- উনি লেখককে মারতে না চেয়ে লেখকের বাচ্চাকে কেন মারতে চাইছেন। এটা অন্যায়, ঘোর অন্যায়।

 

আরো পড়ুন-

0

প্রবন্ধ লেখক

Author: প্রবন্ধ লেখক

বিভিন্ন বিষয়ে প্রবন্ধ লেখার চেষ্টা করছি

Related Posts

সুলতান মাহমুদ গজনবী কি মাযহাব পরিবর্তন করেছেন

সুলতান মাহমুদ গজনবীর হানাফী থেকে শাফে'ঈ হওয়ার কল্পিত গল্প ও শাফে'ঈদের জঘন্য নোংরামো —১   📗 রূপকথার গল্প • রাজ-রাজড়ার

আহলে হাদীস কারা —১

আহলে হাদীস কারা —১   খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রশ্ন। কলিমদ্দি সলিমুদ্দি, পুব পাড়ার মাছ ব্যাপারী, বাজারের সুদী কারবারী ও বিশেষ

মেমোরি কার্ডে লিখিত পরিমানের চেয়ে কম থাকে কেন?

বর্তমানের আমরা সবাই মোবাইল ফোনে স্টোরেজ ডিভাইস হিসাবে মেমোরি কার্ডকে ব্যবহার করে থাকি। যদিও পূর্বে ডেটা সংরক্ষণ করা হতো বড়
AddText 11 19 05.39.37

পাবলিক প্লেসে মোবাইল ব্যবহারের শালীনতা

আধুনিক ডিজিটাল বিশ্বে দৈনন্দিন জীবনযাপনে মোবাইল একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠেছে। আমাদের প্রাত্যহিক জীবন আজ মোবাইল ছাড়া যেন অসম্পূর্ণ। বিশেষকরে

One Reply to “বাংলাদেশের বইমেলার উদ্ভট যত বই”

  1. নামটা সত্যি উদ্ভট! কাহিনীর আকালের মতো নামেরও কি আকাল পড়লো?!

Leave a Reply