হাসপাতালের শয্যা- কবিতা

হাসপাতালের শয্যা থেকে বলছি  – সুজন চন্দ্র দাস

play icon Listen to this article
1

আমি হাসপাতালের শয্যা থেকে বলছি

দিন শেষে বলি, এইতো আরো একটা দিন বেঁচে গেছি

নরকের যন্ত্রণা সহ্য করে বেঁচে আছি

প্রতি প্রহর পাড় করার পরে

মনে হয় শুয়ে ছিলাম এক শতাব্দী ধরে।

হাসপাতালের শয্যা থেকে বলছি

আমি হতোভাগা, আমি পুরা কপালি তাই বুঝেছি

রোজ কতো কষ্ট,যন্ত্রণা,আর্তনাদ দেখছি,

কারো হাত,কারো পা,কারো চোখ নাই

মরণেই একমাত্র শান্তি‌ যেখানে সুখ খুঁজে পাই।

 

 

1

SUJAN CHANDRA DAS

Author: SUJAN CHANDRA DAS

পরিচিত পর্বঃ সুজন চন্দ্র দাস( Sujan Chandra Das), ১২ এপ্রিল, ১৯৯৮ সালে ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর উপজেলার সলঙ্গা গ্রামের এক টি সাধারণ পরিবারে জন্ম । সেখানের স্নিগ্ধ ও কোমল প্রকৃতির পরিবেশে বেড়ে উঠা ।ছোটবেলা থেকেই গল্প, কবিতা, উপন্যাস প্রভৃতির প্রতি ভালো লাগা কাজ করা। লিখতে এবং পড়তে খুব ভালোবাসি। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর লিখালেখির স্বপ্নগুলো হাতে ছুঁই ছুঁই এতোটাই কাছ থেকে দেখতে পাওয়া । বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকা, জাতীয় পত্রিকা এবং অনলাইন জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে অসংখ্য কবিতা। বেশ কয়েকটি ম্যাগাজিনেও প্রকাশিত হয়েছে কবিতা। ইতিমধ্যেই যৌথভাবে দুটি যৌথকাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। বর্তমানে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় অর্থনীতি বিভাগে অধ্যয়নরত। বিভিন্ন ধরনের সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে যুক্ত আছি। সাংবাদিকতার হাতেখড়ি হয় প্রবাসীর দিগন্ত নিউজের মাধ্যমে আর ভালোবাসা থেকে এখনো এখানে আছি। এসবি পুলক নামে অনেকের কাছে পরিচিত

Related Posts

আমি হারিয়ে গেছি

আমি হারিয়ে গেছি একেবারে তাই আর খুঁজে পেতে চাই না কোনোমতে। আমি মিলিয়ে গেছি অস্ত আকাশে তাই আর উদয় হতে

ইচ্ছে তোমায় দেই

তোমায় দিতে ইচ্ছে করে  এমন একটি রাত্রি, তুমি হবে জোৎস্নায় চড়ে তারার পানে যাত্রী। তোমায় দিতে ইচ্ছে করে এমন একটি

তোমায় দিলাম

আমার স্বপ্ন মোড়ানো সাধের বিকেল তোমায় দিলাম। তোমার বিষন্নতার পড়ন্ত বিকেল আমায় দিও। আমার আগুন লাগা ফ্লাগুন সন্ধ্যা তোমায় দিলাম।

শ্যামা মা তুই কত দয়াময়ী

শ্যামা মা, তুই কত দয়াময়ী- তোর কথা ভেবে আমি হয়েছি বিবাগী তাই। আমার নিজের প্রতি নেই রে মোহ আর- আমি

Leave a Reply