স্বাধীনতা তুমি

play icon Listen to this article
0

স্বাধীনতা তুমি বসন্ত বিকেলে,কোকিলের গাওয়া গান,
স্বাধীনতা তুমি দুর্বার চলা,রুপালী নদীর বাণ।

স্বাধীনতা তুমি মায়ের মুখের,মিষ্টি মিষ্টি হাসি,
স্বাধীনতা তুমি রাখাল ছেলের,ছন্দ সুরের বাঁশী।

স্বাধীনতা তুমি ফুল বাগানে,স্নিগ্ধ সুরভি ফুল,
স্বাধীনতা তুমি অথই সাগরে,শান্তি সুখের কুল।

স্বাধীনতা তুমি অগ্রগামীদের,সম্মুখে পথ চলা,
স্বাধীনতা তুমি ঘোর আঁধারে,আলোর মশাল জ্বলা।

স্বাধীনতা তুমি আষাঢ়ে বৃষ্টির,রিম ঝিমঝিম শব্দ,
স্বাধীনতা তুমি মন মহলে,জ্বীবন্ত রঙ্গিন স্বপ্ন।

স্বাধীনতা তুমি পরন্ত বিকেলে,মৃদ দক্ষিণা হাওয়া।,
স্বাধীনতা তুমি পরাধীন থেকে,পূর্ণ মুক্তি পাওয়া।

স্বাধীনতা তুমি সহায় হয়েছ,স্বাধীনভাবে হাসতে,
স্বাধীনতা তুমি পথ দেখিয়েছো,স্বাধীনভাবে বাঁচতে।

স্বাধীনতা তুমি ধন্য করেছো,এসে বাংলার বুকে,
স্বাধীনতা তুমি মায়ের ভাষা,বলতে দিয়েছো মুখে।

প্রকাশিত: “শাহ্জাদপুরী কবি এবং কবিতা” বইয়ে,শ্রাবন
১৪১৬ বাংলা ২০০৯ ইং, শাহজাদপুর-সিরাজগঞ্জ।

0

Related Posts

শ্যামা মা তুই কত দয়াময়ী

শ্যামা মা, তুই কত দয়াময়ী- তোর কথা ভেবে আমি হয়েছি বিবাগী তাই। আমার নিজের প্রতি নেই রে মোহ আর- আমি

জাতির জনক

হয়েছি মোরা অত‍্যাচারিত হয়েছি অনেক লাঞ্চিত পরাধীনতায় কাটিয়েছি জীবন হয়েছি মোরা বঞ্চিত পাক সেনারা বাংলার মায়েদের করতো নির্যাতন তাদের অত‍্যাচারে

প্রভু, শান্তি কোথা পাই

প্রভু শান্তি কোথা পাই এ যে অশান্তির মন্ডল। শান্তি যে কোথাও নাই।। জীবন গ্রাসে তীব্র আশে স্বপ্ন মরে দিনে দিনে।।

তুমি আর আমি

তুমি আর আমি,একই সুতোয় গাঁথা বিধাতার সংস্পর্শে, হয়েছি, কবিতার পাতা তুমি আর আমি,একই গানের সুর বিধাতার সংস্পর্শে, দু'জন মিলে হারায়

Leave a Reply