মজাদার স্যামন মাছ

স্যামন মাছ খেতে কেমন?

স্যামন মাছের বাংলা নাম আছে কি না আমার জানা নেই। এই লেখাটিতে তুলে ধরার চেষ্টা করবো মাছটি খেতে কেমন, আইশ কোন ধরণের, কোন দেশে পাওয়া যায়, দাম কেমন এবং আরো মজাদার অনেক বিষয়। Salmon- হচ্ছে মাছটির ইংরেজী নাম। এজন্য বাংলাতেও অনেকে সেলমন মাছ বলে যেটা ভুল উচ্চারণ।

Salmanthebrownfish নামে(বাংলাদেশের প্রথম জনপ্রিয় ইউটিউবার) সালমান মুক্তাদিরের একটি ইউটিব চ্যানেল আছে। তার নামটিও কিন্তু স্যামন মাছের কাছ থেকে ধার করা। Salman আর স্যামন এর বানান প্রায় একই।

স্যামন মাছের আইশ কোন ধরনের

আপনারা ছবিতে মাছটি দেখতে পাচ্ছেন। এখান থেকে আইশ সম্পর্কে আপনাদের কৌতুহলের কিছুটা নিবৃত্তি ঘটবে বলে আশা করা যায়। এর আইশ মাঝারি আকারের। সাধারণত মাছের আইশ চার ধরনের হয়- Placoid, Ctenoid, Cycloid, Ganoid। স্যামন মাছ এর আইশ Cycloid.

স্যামন মাছের দাম কত?

বিদেশে কত দাম সেটা সম্পর্কে জেনে আমাদের লাভ নেই, বাংলাদেশে এর দাম হচ্ছে ৯০০ থেকে ১২০০ টাকা কেজি। ফেসবুক গ্রুপ এবং বিভিন্ন ওয়েবসাইট, বাজারে এই মাছ আপনি কিনতে পারবেন। কক্সবাজারের সমূদ্র সৈকতেও পাওয়া যায়। ভারতেও দাম প্রায় একইরকম Indiamart এ ৯০০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

স্যামন মাছ খেতে কেমন?


সাধারণত মাছের যেমন স্বাদ হয় স্যামনের স্বাদ তার থেকে আলাদা। মাছের চেয়ে মাংসের স্বাদের সাথে মিল বেশী পাওয়া যায় বলে স্যামনখাদকেরা বলেছেন। উপরের ভিডিওতে বিভিন্নরকম স্যামন খেয়ে মানুষের reaction কেমন হয় সেটা দেখতে পাচ্ছেন। মজাদার এবং সূক্ষ্ম স্বাদের একটি মাছ। না খেলে আসলে বোঝা যাবে না, পুরোপুরি বোঝানোও যাবে না।

স্যামন মাছের উপকারিতা

এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড, খনিজ পদার্থ এবং ভিটামিন বি। তাই স্যামন মাছ খেলে নানারকম উপকারিতা পাওয়া যায়। চলুন জেনে নেই কিছু উপকারিতার কথা-

  • ওমেগা-৩ আমাদের মস্তিস্কের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটাতে সাহায্য করে
  • বার্ধক্যজনিত নানারকম সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে
  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়
  • কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রনে রাখতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে
  • কিছু কিছু গবেষণায় দেখা গেছে এটি হতাশা দূর করার ক্ষেত্রে ভূমিকা পালন করে
  • ঘুমের সমস্যা আমাদের জন্য খুব সাধারণ একটি ব্যাপার। এই মাছ ঘুমের সমস্যা দূর করতে সহায়তা করে

 

মাত্রাতিরিক্ত খেলে সবকিছুতেই ক্ষতি হবে। আপনি যদি এত এত উপকারিতার কথা শুনে মাত্রাতিরিক্ত পরিমাণে খাওয়া শুরু করেন, তাহলে আপনার স্বাস্থ্যঝুকি থাকবে। আর, অন্য কোন শারিরিক সমস্যা থাকলে ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন।

 

সময় থাকলে পড়তে পারেন-

আরো তথ্য খুঁজুন

(Visited 9 times, 1 visits today)

আরো লেখা খুঁজুন