কাক- একটি বুদ্ধিমান প্রাণী

কাক, কোকিল, জাহাজ, নারী শব্দের সমার্থক শব্দ কি?

play icon Listen to this article
0

কাক, কোকিল, জাহাজ এবং নারী এই চারটি শব্দের সমার্থক শব্দ বা, শব্দের অর্থ এই লেখাটির মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন। পুরো লেখাটি একবারেও পড়তে পারেন, আবার আপনি যে শব্দার্থ জানতে চান সেটি নিচের লিস্ট থেকে সিলেক্ট করে সেটি সম্পর্কেও জেনে নিতে পারেন।

যারা স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বা, বিসিএস এর জন্য পড়া মুখস্ত করতে চান তাদের উচিত হবে চারটি একসাথে পড়া- তাহলে সহজে মনে থাকবে। একটি মনে রাখা কঠিন কিন্তু একবারে একাধিক শব্দ মনে রাখা সহজ।

কাক

কাক শব্দের অর্থ পরভৃৎ, বায়স, কর্ভুম,  দক্ষিণ আমেরিকা ছাড়া পৃথিবীর সব মহাদেশেই কম বেশী কাক দেখা যায়। বাংলাদেশে শুধু কালো রঙের পাতিকাক রাস্তাঘাটে দেখা গেলেও, পৃথিবীর অন্যান্য জায়গায় কিছু ভিন্ন রঙের কাকও দেখা যায়।

দেখতে ভালো না হলেও সৃষ্টিকর্তা এই পাখিটিকে বুদ্ধি দিয়েছেন। ধারণা করা হয় এটিই সবচেয়ে বুদ্ধিমান পাখি। এরা যন্ত্রপাতি ব্যবহার করতে পারে, এমনকি কিছু যন্ত্রপাতি তৈরিও করতে পারে।

আমরা ঈশপের সেই গল্পের কথা জানি, যেখানে একটি কাক পানির পাত্রের নিচের দিকে পানি থাকায় তা পান করতে পারছিল না, এরপর পাথর জোগাড় করে তা পানিতে ফেলে পানির লেভেল উচু করে সেখান থেকে পানি পান করে। এরকম অনেক কিছুই কাককে দিয়ে সত্যিই সম্ভব। বিবিসি আর্থ এর এই ভিডিওতে আটটি ধাঁধাঁ সমাধান করে কাক খাবার কিভাবে খেয়েছে তা দেখতে পারেন-

আপনারাও চাইলে এই পাখিটিকে দিয়ে এরকম সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করে দেখতে পারেন। সত্যজিৎ রায়ের লেখায় এরকম চেষ্টার কথা খুজে পাবেন।

কোকিল

কোকিল শব্দের অর্থ পরভৃত, পরপুষ্ট, অন্যভৃত, কুহুমন্দ্র, কলকন্ঠ, বসন্তসখা ইত্যাদি। এরা নিজের বাসায় ডিম পাড়ে না, পাড়ে অন্যের বাসায়। সুকন্ঠী কোকিলকে বসন্তকালের ডাক শুনে সবাই ভালোবাসে। পৃথিবীর প্রায় সব অঞ্চলেই এই পাখিটির দেখা মেলে।

কোন গায়িকা যদি সুন্দর গান করেন তাকে বলা হয় কোকিলকন্ঠী গায়িকা। বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে যারা গান করেন তাদের মাঝে আমার কাছে কণা, ন্যান্সি এদেরকে কোকিলকন্ঠী মনে হয়। তবে যাই বলেন, গুণের কারণে কিন্তু কোকিলের চেয়ে আমার কাছে কাককেই বেশী ভালো লাগে।

জাহাজ

জাহাজ শব্দের অর্থ অর্ণবপোত, জলযান, স্টীমার ইত্যাদি। জাহাজ কিভাবে ভাসে আর কিভাবে ডোবে সেই সম্পর্কে আপনাদের সাথে একটি তথ্য শেয়ার করি-

যদি একটি জাহাজের ওজন হয় ১০০০ টন(মালামাল, মানুষজন সহ), তাহলে এটি ১০০০ টনের পানিকে অপসারণ করবে। যদি ভেসে থাকা অবস্থায় এই পরিমাণ পানিকে স্বাভাবিক অবস্থান থেকে সরিয়ে নিজের অবস্থান তৈরি করে নিতে না পারে তাহলে ডুবে যাবে। 

একটি জাহাজ সাধারণত ২০-৩০ বছরের জন্য তৈরি করা হয়। এখন পর্যন্ত আমরা যে তথ্য পাই তাতে বলা যায় সমূদ্রের তলদেশে লাখ লাখ জাহাজ ডুবে পড়ে আছে।

নারী

নারী শব্দের অর্থ রমণী, কামিনী, স্ত্রী, নন্দিনী, অবলা, ভাবিনী, অন্তঃপুরবাসিনী ইত্যাদি। সাধারণত প্রাপ্তবয়স্কদের ক্ষেত্রেই নারী শব্দটি ব্যবহার করা হয়। তবে, জাতি অর্থেও এই শব্দটি ব্যবহার করা যায়। 

আয় এবং বিভিন্ন কাজে অংশগ্রহণের দিক বিবেচনায় সারা পৃথিবীতেই নারীরা পুরুষের চেয়ে পিছিয়ে আছে। পৃথিবীর প্রায় সব জায়গাতেই ধরে নেয়া হয় যে নারীদের একমাত্র কাজ ঘর এবং সন্তান সামলানো(বাংলাদেশে তো বটেই)।

সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণে পুরুষের ভূমিকায় প্রধান কারণ নারীদের Y ক্রোমোসম থাকেই না যা সন্তান ছেলে হবে নাকি মেয়ে সেটি নির্ধারণ করে। রাজনৈতিক, সামাজিক, অর্থনৈতিক ইত্যাদি নানা ক্ষেত্রে কম সংখ্যায় নারীর অংশগ্রহণ দেখা যায়।

নারীবাদি বলতে নারীর অধিকার নিয়ে সচেতন এমন নারী বা, পুরুষকে বুঝায়। বর্তমান সময়ে, অনেকে আবার নারীবাদি বলতে এমন কাউকে বোঝেন যিনি পুরুষের অধিকার কেড়ে নেয়া এবং একপেশে চিন্তাধারা লালন করেন- কেউ কেউ হয়তো এই চর্চাও করতে পারেন।

 

আরো পড়ুন-

0

প্রবন্ধ লেখক

Author: প্রবন্ধ লেখক

বিভিন্ন বিষয়ে প্রবন্ধ লেখার চেষ্টা করছি

Related Posts

পঞ্চকবি, পঞ্চপান্ডব, অমিয় চক্রবর্তী, বিষ্ণু দে, বুদ্ধদেব বস্য, সুধীন্দ্রনাথ দত্ত, জীবনানন্দ দাস

বাংলা সাহিত্যের পঞ্চপান্ডব এবং পঞ্চকবি

বাংলা সাহিত্যের পঞ্চকবি এবং পঞ্চপান্ডব রয়েছে।  পঞ্চপান্ডব বলে পরিচিত কবিরা রবীন্দ্রনাথের জীবদ্দশায় রবীন্দ্র বলয়ের বাইরে গিয়ে কবিতা রচনা করেছিলেন। এই পাঁচজন
পঞ্চপান্ডব

পঞ্চপান্ডব আসলে কারা? চলুন জেনে নেই

পঞ্চপান্ডব মূলত প্রাচীন ভারতীয় মহাকাব্য মহাভারতে ধর্মের পক্ষে থাকা পাঁচ ভাইকে বলা হয়। বাংলাদেশ ক্রিকেট এবং বাংলা সাহিত্যের পঞ্চপান্ডবের ধারণাটাও
চর্যাপদের কথা

চর্যাপদ- বাংলা সাহিত্যের প্রাচীনতম নিদর্শন

বাংলা সাহিত্যের আদি নিদর্শন চর্যাপদ লেখা হয়েছে সপ্তম থেকে দ্বাদশ শতাব্দির মধ্যে। এই সময়ে বাংলায় পাল রাজাদের রাজত্ব ছিল। পাল
ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর এর প্রকৃত নাম ঈশ্বরচন্দ্র বন্দোপাধ্যায়। তবে, তিনি স্বাক্ষর করতেন ঈশ্বরচন্দ্র শর্মা নামে। বিদ্যাসাগর উপাধিটি সংস্কৃত ভাষা ও সাহিত্যে

Leave a Reply