শিন্টো ধর্ম- জাপানের মানুষের ধর্মবিশ্বাস

শিন্টো ধর্ম বহুঈশ্বরবাদী একটি ধর্ম। শিন্টো শব্দের অর্থ দেবতার পথ। এই ধর্মে সৃষ্টিকর্তাকে বলা হয় কামি। অসংখ্য স্রষ্টার অস্তিত্ব আছে বলে এই ধর্মের অনুসারীদের বিশ্বাস। যিশু খ্রিস্টের জন্মের ৬৬০ বছর আগেও এই মতবাদের অস্তিত্ব ছিল বলে প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। জাপানিরা প্রধানত আচারসর্বস্ব এই মতবাদই অনুসরণ করে। 

জাপানের ধর্ম

ধর্মতাত্বিকেরা একে দূর প্রাচ্যের ধর্ম বলে অভিহীত করেন। ৮১০০০ ধর্মীয় স্থাপনা এবং ৮৫০০০ অনুসারী জাপানে আছে বলে মনে করা হয়।  জাপানই জাতির প্রতিষ্ঠাতা আমাতারেসু ওমিকামি এই ধর্মের প্রবর্তক বলে পরিচিত। বৌদ্ধ দর্শনও জাপানিদের কাছে জনপ্রিয়, সেই অর্থে বৌদ্ধ ধর্ম অনুসরণ করে এমন মানুষদেরও এই দেশে খুঁজে পাবেন। 
এটিকে ধর্ম না বলে জীবনাচরণের পদ্ধতি বলে অনেকে মনে করেন। ‘কোজিকি’ নামে এদের একটি ধর্মগ্রন্থ আছে। এরা পুনর্জন্মে বিশ্বাস করে না তবে, পূর্বপুরুষের আত্মায় বিশ্বাস করে। এই ধর্মের ধর্মযাজকদের বলা হয় কানুশি। একজন ব্রিটিশ কূটনীতিবিদ ডব্লিউ জি এস্টন যিনি কোরিয়া-জাপানের ইতিহাস এবং ভাষার বিশেষজ্ঞ ছিলেন তিনি বলেছেন, 
 “Shinto is essentially a religion of gratitude and love”
তথ্যসূত্রঃ 
  1. CHAPTER_2_RELIGIONS-Queensborough Community College
  2. japan-guide.com 

(Visited 4 times, 1 visits today)
0
likeheartlaughterwowsadangry
0

Related Posts

ঘূর্ণিঝড়

২০২০ সালের ঘূর্ণিঝড়ের নামের তালিকা

আমরা আইলা, নার্গিস, রোয়ানু ইত্যাদি ঝড়ের নামের সাথে পরিচিত। নতুন আরেকটি ঘূর্ণিঝড় এসেছিল যার নাম ফণি- এটির নামকরণ বাংলাদেশের করা।
বাংলাদেশের গণতন্ত্র

মন্ত্রী, উপমন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রী কাকে বলে?

মন্ত্রী, উপমন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রী এই তিনটি শব্দ বাংলাদেশ সরকার নিয়ে যেকোন আলোচনায় বারবার উচ্চারিত হয়। এদের সবার পদমর্জাদা সমান নয়,
কাঠমান্ডু - দরবার স্কয়ার

নেপালের ইতিহাস ও অন্যান্য

নেপালের রাজধানীর নাম কাঠমান্ডু।  'জননী জন্মভূমি স্বর্গদপী গরীয়ষী'- এটি নেপালের নীতিবাক্য। রাজতন্ত্র থেকে নেপাল এখন যুক্তরাষ্ট্রীয় গণতান্ত্রিক নেপাল। রাষ্ট্রভাষা মৈথিলি

যে দশটি ঐতিহাসিক স্থান সারা পৃথিবীতে বিখ্যাত

সেরা ঐতিহাসিক স্থান খুজতে আমরা কিছু অনলাইন ব্লগ এবং গুগল সার্চের আশ্রয় নিয়েছি। একথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, পৃথিবিতে

Leave a Reply