শ্রমিকের পক্ষে

ও সে অশেষ বিহনে রঙ্গ দহনে ছাই তোদের নিয়তি,

অক্ষির সমক্ষে দেখিতাম তোরা ক্লান্তির অত্যাচার কে উপেক্ষা করিয়া দাঁড় বাইতি।

যেন মুমূর্ষু প্রান্তে জীবন্ত হইতি জীবন্মৃত হইইয়া,

এহেন কাজে নিজেকে ভিজিয়ে মরণ প্রপাত আনতি বহিয়া!

ওহে তরঙ্গ জীবন নদেও আঘাত হানিয়া যাইত

বিলীন গর্ভে বিলীত রাহী লইয়া সে বড়ই তৃপ্তি পাইত ।

আসুরিক নৃত্য ক্ষইয়া লইল বিগান্ধিক মরিচা তোদের

দাম্ভিক অশরীর মাতিয়া খাইল, মরণেও লজ্জা নাই ওদের ।

মেহেদী পল্লব উপমা শুধুই ঠাই পাইলেও জীবন অনড়

দুঃখ দহনে নোনতা নাচন , কেবা দেখিল হোক যুদ্ধ বদর।

তোদের রক্ত পঁচা বলিয়া পঁচা মাংশ ভক্ষন করে যারা

ঈপ্সা জাগে রুধির ধারায় ক্ষান্ত করি, যাক ওরা শকুন কাঠে মারা !

দুর্বিষহ মলিন পথে কতইবা জীবন দিবি ,

কিসের ভয়ে ভীত হইয়া শ্মশান ঘাটে কঙ্কালের ন্যায় বাঁচবি ?

এসব যাতনা দেখিয়া যারা রক্ত মাখা দন্তে হাসে

ওরে, কবে যে দেখিব ওদের লাশ মরা গঙ্গায় ভাসে !

করিস না বসবাস অজ্ঞানের ভ্রান্ত ছায়াতলে

পিষে দে ওদের, তোদের অভদ্র শ্রমের যাঁতাকলে !

তোদের গালি দিয়া যারা ঘুমায় আরাম কাঠে

শয়তান বৈ ওরা আর কিছু না, পারে তো তোদের মারে তোদেরি মাঠে ।

কিসের প্রতীক্ষায় আজো তোরা ভাসিস নয়ন নীরে ,

তোদের প্রজন্মও কি আসবে এই পিশাচের ভীরে ?

নেড়ী কুত্তাও পারে তো দেয় মলদ্বার ঢেলে ওদের মুখে !

তবে তোরা কেন সইবি দরুণ কষ্ট লইয়া তোদের বক্ষে ?

তোদের স্বচ্ছ অন্তর আমি দেখিয়াছি তাই বাঁচিয়া আছি আজো ,

এসব কারণেই হয়ত সভ্য সমাজ থেকে হইয়াছি ত্যাজ্য ।

কিবা আসে যায় তাহাতে ?

আমি তো মরছি না হইয়া হাভাতে।।

আমার কাব্য নষ্ট পাথরে খোদাই হইতে দিব না ,

কোথায় নজরুল , কোথায় মুজিব তাদের উদ্দেশ্য সফল না করিয়া

হে মালিক এ পৃথ্বী আমি ছাড়িতে চাহি না।।

(Visited 4 times, 1 visits today)
0
likeheartlaughterwowsadangry
0

Related Posts

ধর্ষণের জন্য দায়ী কে

ধর্ষণের জন্য কী আসলেই নারীর পোশাক দায়ী?

অভিযোগ: নারীদের পোশাক দ্বারা প্রভাবিত/তাড়িত হয়ে পুরুষেরা নারীদের,শিশুদের ও পশুপাখিদের ধর্ষণ করে। উত্তর: আপনি কোনো কিছু দ্বারা তাড়িত হয়ে কোনো
সৃজনশীল শিল্পকর্ম

বড়শিবিদ্ধ সৃজনশীলতা

ঘটনাটি দু' বছর আগের। একদিন হঠাৎ ছেলে মেয়েদের পিঠে খাওয়ার ইচ্ছে হল। আমার স্টকে থাকা পিঠে তৈরির রেসিপি অনুযায়ী সব

প্রার্থনা

প্রভু, আমায় দাও " বায়োনিক ওম্যান" এর ন্যায় শক্তিধর বায়োনিক কান, যেন শুনতে পাই অসহায় নির্যাতিতের তাৎক্ষণিক আর্তি, আকাশ বাতাস
টাকা কথন

টাকা কথন

ছোট বেলায় হয় পাতা নতুবা কাগজ কে টাকা বানিয়ে 'ক্রেতা - বিক্রেতা' খেলাটা খেলেনি এমন মানুষের সংখ্যা হাতে গোনা। ভাবতো,

Leave a Reply