বেলের উপকারিতা

বেলের উপকারিতা ও অপকারিতা

0বেল একটি খুবই সাধারণ ফল। শুধু গ্রামেই নয়, শহরেও তেল সমানভাবে জনপ্রিয়। বেল সাধারণত আমরা শরবত বানিয়ে খেয়ে থাকি। গ্রীষ্মকালে বেলের ঠান্ডা শরবত খেলে যে প্রশান্তি পাওয়া যায় তা অন্য কোনো কিছু থেকে পাওয়া যায় না। অগণিত খনিজ উপাদানের সমৃদ্ধ বেলের উপকারিতা সম্পর্কে আজকে আলোচনা করতে চলেছি। বেল এক প্রকার গোলাকার ফল, যার একটি অতি

শর্করা জাতীয় খাবার কি কি

শর্করা জাতীয় খাবার কি কি?

0আজকে আমরা জানবো খাদ্যের প্রধান ছয়টি উপাদানের মধ্যে অন্যতম শর্করা জাতীয় খাবার সম্পর্কে। শর্করা, যাকে ইংরেজিতে কার্বোহাইড্রেট বলা হয়, মানবদেহের শক্তি উৎপাদন ও ক্ষয়ক্ষতি পূরণে অভাবনীয় ভূমিকা পালন করে। আমাদের দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় শর্করা জাতীয় খাদ্যের পরিমাণ অন্যান্য যে কোনো খাদ্য উপাদানের চেয়ে বেশি হয়ে থাকে। শর্করা জাতীয় খাদ্য কাকে বলে? শর্করা জাতীয় খাদ্যকে ইংরেজিতে

প্রোটিন জাতীয় খাবার

খাদ্য তালিকায় রাখুন প্রোটিন জাতীয় খাবার

0আমরা জানি, পুষ্টি বিজ্ঞানীরা খাদ্যের উপাদানগুলোকে মোট ছয়টি প্রধান ভাগে ভাগ করেছেন। যার মধ্যে একটি হচ্ছে প্রোটিন, যাকে বাংলায় বলি আমিষ। বেচে থাকতে হলে আমাদের অবশ্যই প্রোটিন জাতীয় খাবার গ্রহণ করতে হবে। ১০ টি প্রধান হাই প্রোটিন জাতীয় খাবার কোনগুলো এখানে জেনে নিন! প্রোটিন জাতীয় খাবার নিয়ে এই লেখাটিতে যে সকল বিষয়ে আলোকপাত করতে চলেছি–

ক্যালসিয়াম জাতীয় খাবার কেন খাবেন?

জেনে নিন ক্যালসিয়াম জাতীয় খাবার কেন খাওয়া উচিত

1ক্যালসিয়াম একটি অতি প্রয়োজনীয় খনিজ পুষ্টি উপাদান, যা বিভিন্ন খাদ্য, যেমন দুগ্ধজাতীয় খাদ্যে পাওয়া যায়। মানবদেহের হাঁড় এবং দাঁতের প্রায় ৯৯% ক্যালসিয়াম দ্বারা গঠিত। ক্যালসিয়ামের অভাবে হাঁড় নিয়মিত ক্ষয় হতে থাকে। এই লেখার মাধ্যমে জেনে নিন ক্যালসিয়াম জাতীয় খাবার খাওয়ার উপকারিতা। আমাদের শরীরে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ক্যালসিয়ামের প্রয়োজন। কিন্তু বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে ক্যালসিয়ামের

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার কেন খাবেন?

0ভিটামিনকে বাংলায় বলা হয় খাদ্যপ্রাণ। খাদ্যের মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে ভিটামিনকেই বিবেচনায় আনা হয়। ভিটামিন আবার ছয় প্রকার, যার মধ্যে ভিটামিন ডি একটি। ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার কেন খাবেন? চলুন প্রশ্নটির উত্তর জেনে আসা যাক! ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার বিষয়ক আজকের আর্টিকেলে আমরা যে সকল বিষয়ে আলোকপাত করতে চলেছি– ভিটামিন ডি যুক্ত শাকসবজি ভিটামিন

ভিটামিন এ জাতীয় খাবার

ভিটামিন এ জাতীয় খাবার কেন খাবেন?

0বেঁচে থাকার জন্য আমরা খাদ্য গ্রহণ করি। খাদ্যকে পুষ্টিবিজ্ঞানীরা ছয়টি প্রধান ভাগে ভাগ করেছেন। যাদের মধ্যে একটি হচ্ছে ভিটামিন। আবার ভিটামিনকেও ছয়টি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। যার মধ্যে অন্যতম ভিটামিন এ। ভিটামিন এ জাতীয় খাবার কেন খাবেন? প্রশ্নটি উত্তর চলুন খুঁজে বের করার চেষ্টা করি। ভিটামিন এ জাতীয় খাবার খাদ্যের প্রধান ছয়টি উপাদানের মধ্যে ভিটামিন

গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা

গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা

1গর্ভকালীন সময় শুধু একজন মায়ের জন্য নয় বরং একটি নবাগত শিশুর জন্যেও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়। গর্ভকালীন সময়ে একজন মায়ের শারীরিক ও মানসিক পরিবর্তন ঘটে এবং একটি শিশু অতিক্ষুদ্র ভ্রূণ থেকে পূর্ণাঙ্গ মানবশিশুতে রূপ নেয়। নবাগত শিশুর সুস্বাস্থ্য নির্ভর করে মায়ের খাদ্যাভাসের উপর। মায়ের জন্য উপযুক্ত খাদ্য তালিকা শিশুর দৈহিক বিকাশের পাশাপাশি প্রসূতি মায়ের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত

সর্দিকাশিতে মধু

0 আব্দুল মান্নান মধু হলো আল্লাহ্ প্রদত্ব নিয়ামত বা বিশেষ দান। একটি মহৌষধ যার গুণ বহুমূখী। মধু নিয়মিত সেবনে সুস্থভাবে দীর্ঘজীবন লাভ করা যায়। সর্দিকাশির অসুখে মধু ভাল কাজ করে। সম্প্রতি চিকিৎসকগণ এর প্রাকৃতিক সমাধান খোঁজে পেয়েছেন। নতুন গবেষণায় জানা গেছে সর্দিকাশির অসুখে অসামান্য ভূমিকা রাখতে পারে মধু। এক্ষেত্রে এন্টিবায়োটিক তেমন ভাল কাজ করতে পারেনা।

এলোভেরা বা, ঘৃতকুমারি

ঘৃতকুমারি বা, এলোভেরার উপকারিতা ও অপকারিতা

0এলোভেরার উপকারিতা যেমন আছে, তেমন অপকারিতাও কিছু আছে। ওজন কমাতে, ত্বকের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধিতে, কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখতে ইত্যাদি নানারকম উপকারি দিক রয়েছে এই ঐষধি গাছটির। এই লেখাটিতে এর দুটি দিকই তুলের ধরার চেষ্টা করবো। এছাড়া ব্যবহারের নিয়ম সম্পর্কেও ধারণা দিতে চেষ্টা করবো। এলোভেরা জেল সুন্দর ত্বকের রহস্য হচ্ছে এর সুস্থতা। সুস্থ ত্বক সব সময় সুন্দর দেখায়।

অশ্বগন্ধ্যা ফল

অশ্বগন্ধার উপকারিতা ও অপকারিতা

0এর ইংরেজী নাম হচ্ছে- poison gooseberry, winter cherry বা, Ashwagandha. এই লেখাটিতে অশ্বগন্ধার উপকারিতা ও অপকারিতা নিয়ে কিছু তথ্য দেয়ার চেষ্টা করবো। একইসাথে গাছ চেনার উপায়, হোমিওপ্যাথিক ব্যবহার, খাওয়ার নিয়ম, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ইত্যাদি নিয়েও কিছু কথা থাকবে। এটারও অনেক ক্ষতিকর দিক আছে, তারপরেও কেন খাওয়া উচিত, কি কাজে ব্যবহার করা উচিত, আদৌ উচিত কি না সেটি