নাস্তিকতাবাদ, অজ্ঞেয়বাদ এবং অন্যান্য মতবাদ

নাস্তিকতাবাদ বলতে আমরা এমন মতবাদকে বুঝি যেখানে ঈশ্বরের বা, কোন সৃষ্টিকর্তার অস্তিত্ব স্বীকার করা হয় না। এর বাইরে আরো কতগুলো মত থাকতে পারে যেগুলো আমরা বাংলা ভাষায় সাধারণত ব্যবহার করি না। প্রাতিষ্ঠানিক ধর্মে বিশ্বাস করে না এমন কিছু মতবাদ থাকতে পারে-
  1. ঈশ্বরের অস্তিত্ব নেই বলে মনে করা 
  2. ঈশ্বরের অস্তিত্ব আছে কি না সেটা জানা সম্ভব না 
  3. ঈশ্বরের অস্তিত্ব আছে কিন্তু পৃথিবীতে প্রচলিত কোন ধর্মই ঠিক না 
  4. মানুষ এবং সমগ্র জগত নিজেই সমষ্টিগতভাবে সব কিছুর স্রষ্টা এবং আলাদাভাবে সৃষ্ট বস্তু/প্রাণী
এক নম্বর দলের লোকদেরকে আমরা ইংরেজীতে Atheist এবং বাংলায় নাস্তিক এবং এই মতবাদকে নাস্তিকতা(Atheism) বলতে পারি।  
দুই নম্বর মতবাদকে বলতে পারি অজ্ঞেয়বাদ বা, Agnosticism। 
তিন নম্বর মতবাদে বিশ্বাসী লোকদের ইংরেজীতে বলা হয় dissenter এবং বাংলায় বলা যেতে পারে প্রাতিষ্ঠানিক ধর্মবিরোধী(একবাক্যে অন্য কিছু বলা যায় মনে হলে কমেন্টে জানাবেন)। ইংরেজীতে বলা হয় Deism।
চার নম্বর দলের অনুসারীদের মতকে বলা যায় অসৃষ্ট(Non Creationalism) মতবাদ(জৈন ধর্মের অনুসারীরা এই মতে বিশ্বাসী)। এজন্য এটাকে ধর্ম না বলে অনেকে দর্শন বলেন, বৌদ্ধ ধর্মের ক্ষেত্রেও এমনটা বলা হয়। তবে, বৌদ্ধ ধর্মে ঈশ্বরের অস্তিত্ব ব্যক্তিরূপে না ভেবে নিয়মরূপে ভাবা হয়।

অজ্ঞতার কারণে অনেকে মোটা দাগে সব রকম মতবাদের মানুষদের নাস্তিক হিসেবে উপস্থাপন করেন যা সত্য নয়। বৌদ্ধ ধর্মের নিয়মতান্ত্রিকতা বা, জৈন ধর্মের স্রষ্টা এবং সৃষ্টির মিলেমিশে একাকার হয়ে যাওয়ার যে মত সেটি বেশ আকর্ষণীয়। এবং এটির সাথে পদার্থবিজ্ঞানের কোয়ান্টাম মেকানিক্সকে মিলিয়ে আবার অনেকে কোয়ান্টাম মেথড, সমন্বিত চেতনা ইত্যাদি ধারণা তুলে ধরার চেষ্টা করেন। সংগত কারণে তাদের এই মতটাও জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

যারা পদার্থবিজ্ঞানের কোয়ান্টাম মেকানিক্স সম্পর্কে ধারণা রাখেন তারা জানেন যে, এটি শুধুই একটি বলবিদ্যা যা ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র বস্তুকণার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। চেতন জগত নিয়ে কোয়ান্টাম মেকানিক্স কখনোই কাজ করে না। এর কাজ শুধুই প্রাণহীন জড় জগতের আচরণ নিয়ে। আর, দৃশ্যমাণ বস্তুগুলোর ক্ষেত্রে নিউটনীয় বলবিদ্যা এখনও কার্যকর। পদার্থবিজ্ঞানীদের মতে Collective Consciousness এর ধারণা ভাওতাবাজি ছাড়া আর কিছুই না। যারা ধর্ম এবং বিজ্ঞান সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখেন তারা কখনোই এই দুটির একটিকে দিয়ে আরেকটি প্রমাণের চেষ্টা করেন না। 

প্রাতিষ্ঠানিক ধর্মে অবিশ্বাসীদের এর বাইরে আর কোন মত থাকতে পারে বলে এই মুহুর্তে আমার মনে হচ্ছে না। ঈশ্বরে বিশ্বাসীদের মাঝেও একেশ্বরবাদী, সর্বেশ্বরবাদী এবং আরো বিভিন্ন মত রয়েছে।

(Visited 15 times, 1 visits today)
0
likeheartlaughterwowsadangry
0

Related Posts

ঘূর্ণিঝড়

২০২০ সালের ঘূর্ণিঝড়ের নামের তালিকা

আমরা আইলা, নার্গিস, রোয়ানু ইত্যাদি ঝড়ের নামের সাথে পরিচিত। নতুন আরেকটি ঘূর্ণিঝড় এসেছিল যার নাম ফণি- এটির নামকরণ বাংলাদেশের করা।
বাংলাদেশের গণতন্ত্র

মন্ত্রী, উপমন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রী কাকে বলে?

মন্ত্রী, উপমন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রী এই তিনটি শব্দ বাংলাদেশ সরকার নিয়ে যেকোন আলোচনায় বারবার উচ্চারিত হয়। এদের সবার পদমর্জাদা সমান নয়,
কাঠমান্ডু - দরবার স্কয়ার

নেপালের ইতিহাস ও অন্যান্য

নেপালের রাজধানীর নাম কাঠমান্ডু।  'জননী জন্মভূমি স্বর্গদপী গরীয়ষী'- এটি নেপালের নীতিবাক্য। রাজতন্ত্র থেকে নেপাল এখন যুক্তরাষ্ট্রীয় গণতান্ত্রিক নেপাল। রাষ্ট্রভাষা মৈথিলি

যে দশটি ঐতিহাসিক স্থান সারা পৃথিবীতে বিখ্যাত

সেরা ঐতিহাসিক স্থান খুজতে আমরা কিছু অনলাইন ব্লগ এবং গুগল সার্চের আশ্রয় নিয়েছি। একথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, পৃথিবিতে

Leave a Reply