শান্তি

play icon Listen to this article
2

অনেক আগে লীগ অব নেশনস্

দূর করতে চেয়েছিলো টেনশান।

কিন্তু, তারপরেও দেখেছিলো বিশ্ব

জাপানের হিরোশিমা আর নাগাসাকির দৃশ্য।

তারপর ১৯৪৫ এর অক্টবরে

গঠিত হলো জাতিসংঘ শান্তির বার্তা নিয়ে।

ভেবেছিলাম শান্তি থাকবে বজায়,

কিন্তু কী হলো সিরিয়ায়!

কেন হলো ১৯৪৭ এর ভারতবর্ষ শাষন?

কেন হলো মিয়ানমারে রহিঙ্গা অপসারণ?

কেন কাদঁছে ফিলিস্তিনের শিশু?

তাহলে কোথায় গেল শান্তি? কোথায় গেল জাতিসংঘের শান্তির নীতি?

বিশ্ব নেতারা আজ ক্ষমতার লোভে অন্ধ।

জাতিসংঘ এখন তাদের কাছে এক অস্ত্র,

যার নীতি আর নিয়মের দোহাই দিয়ে তারা আজ শোষন করছে বিশ্ব!

“যুদ্ধ নয় শান্তি চাই” এটা এখন শুধুই তাদের  মুখের বুলি।

তারা আজ ” শান্তি নয়, ক্ষমতা চাই” নীতিতেই বিশ্বাসী।

তাই তো হায়! শান্তি আজ বড়ো অসহায়!

2

Imran Hossain

Author: Imran Hossain

Related Posts

আমি হারিয়ে গেছি

আমি হারিয়ে গেছি একেবারে তাই আর খুঁজে পেতে চাই না কোনোমতে। আমি মিলিয়ে গেছি অস্ত আকাশে তাই আর উদয় হতে

ইচ্ছে তোমায় দেই

তোমায় দিতে ইচ্ছে করে  এমন একটি রাত্রি, তুমি হবে জোৎস্নায় চড়ে তারার পানে যাত্রী। তোমায় দিতে ইচ্ছে করে এমন একটি

তোমায় দিলাম

আমার স্বপ্ন মোড়ানো সাধের বিকেল তোমায় দিলাম। তোমার বিষন্নতার পড়ন্ত বিকেল আমায় দিও। আমার আগুন লাগা ফ্লাগুন সন্ধ্যা তোমায় দিলাম।

শ্যামা মা তুই কত দয়াময়ী

শ্যামা মা, তুই কত দয়াময়ী- তোর কথা ভেবে আমি হয়েছি বিবাগী তাই। আমার নিজের প্রতি নেই রে মোহ আর- আমি

One Reply to “শান্তি”

  1. এই রচনায় মানবিক দিকটা লেখক চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন।
    বলা হয়ে থাকে একজন লেখক সামাজের প্রতি দায়বদ্ধতার কারণে লিখেন৷ ।

Leave a Reply