আমার এক পাঠক ছিল – ভাস্কর পাল

0

আমার এক পাঠক ছিল

-ভাস্কর পাল

 

আমার এক পাঠক ছিল-

রোখা মেজাজ, স্তব্ধ মুখে

স্বপ্ন গুলো জুড়ে দিত।

নিদ্রা প্রেমী হয়তো বোধহয়!

ঘুম আসতো বইয়ের পাতায়।

সন্ধ্যে হলেই একটা-দুটো

অনেক গুলো তারার মতোই,,

কবিতা গুলো শুনতো কেবল

প্রশ্ন গুলো চেপে রেখে।।

ঠিক জানি না কেমন করেই

প্রতি রাতের আঁধার পরেই-

অপেক্ষাতেই থাকতো চেয়ে

রোখা মেজাজ, স্তব্ধ মুখে।

 

আমার একটা, পাঠক ছিল

বলতে ভীষণ ভালো লাগে-

খুব অচেনা হলে পরেও

চির সত্য আমার কাছে।

যেমন করে দিনের আলো

ঝাপসা হয় মেঘ ঘনিয়ে-

যেমন করে কৃষ্ণচূড়া,

দমকা হওয়ায় ঝরে পড়ে

তেমন করেই নিদ্রিত সে

আমার কাঁধে মাথা রাখে।

আমার একটা, পাঠক ছিল

বলতে ভীষণ ভালো লাগে।।

 

ভেঙে চুরেও আমায় যেন

আবার কেমন শক্ত করে-

হারিয়ে যাওয়া দিনের পরেও

আমার হয়েই থেকে গেছে।

কেমন যেন গানের সুরে

ভেসে আসে কণ্ঠ তারই,

হারিয়ে যাওয়া পাঠক বুঝি

আবার বলে –

‘কবিতা খানি শুনাও দেখি’।

আমার এক পাঠক ছিল

আমার কাছে বড্ড দামি।।

 


আরো পড়ুন-


 


Screenshot 3
বিজ্ঞাপনঃ বই কিনুন, বই পড়ুন

0

ভাস্কর পাল

Author: ভাস্কর পাল

আমার নাম ভাস্কর পাল। জন্ম পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ব্যারাকপুর অঞ্চলে। ছোটো থেকে মায়ের হাত ধরে বিদ্যালয়ের পত্রিকায় কবিতা লেখা শুরু। বিভিন্ন যৌথ বই এবং পত্রিকায় অনেক কবিতা প্রকাশিত হয়েছে। তাছাড়া ২০২২ সালে নিজের একটি একক কবিতার বই 'ফুলঙ্গিনী' প্রকাশিত হয়েছে।

নিচের লেখাগুলো আপনার পছন্দ হতে পারে

জানোয়ার ( ৭)

মানুষ যদি মানুষ না হত? সে জানোয়ার হত।কারন? জানোয়ারের চা'র ঠ্যাং।একদিন এক জানোয়ার গেল মাঠে, গিয়ে দেখল  এক জানোয়ার শুয়ে

ভিক্টোরিয়া পার্ক

ভিক্টোরিয়া পার্কে কি হয়? সবাই প্রেম করে, একজন আরেকজনের গলা জড়িয়ে ধরে। জড়িয়ে ধরে কি কয়? তুমি আমার হও, তুমি

কাবার ইমাম ক্ষুব্ধ

[ez-toc]কাবার ইমাম ক্ষুব্ধ মোঃ রুহুল আমিন কাবার ইমাম ক্ষুব্ধ আজি কেনো জানেন ভাই? কাবায় এসে হাজিরা সব ছবি তোলছে তাই।

স্বাধীনতার ঘ্রাণ

স্বাধীনতার ঘ্রাণ মোঃ রুহুল আমিন স্বাধীনতা এলো বাংলায় দীর্ঘ নয় মাস পর॥ নয়টি মাসে কতো মায়ের শূন্য হইলো ঘর! পাক

Leave a Reply