আহলে হাদীসের ইমাম কি স্বয়ং রাসূল: ইবনে কাসীর রহ. এর বক্তব্যের জবাব

0

আহলে হাদীসের ইমাম কি স্বয়ং রাসূল: ইবনে কাসীর রহ. এর বক্তব্যের জবাব

 

একটা কথা প্রচার করা হয় যে আহলে হাদিসের ইমাম নাকি স্বয়ং রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। এবং এই ব্যাপারে ইমাম ইবনে কাসীর রহ. এর উদ্ধৃত একটি বক্তব্যও রেফারেন্স হিসেবে পেশ করা হয়। বক্তব্যটি হচ্ছে এই—

 

তিনি তাঁর গ্ৰন্থে একটি কওল উদ্ধৃত করেছেন, আহলে হাদিসের জন্য সবচেয়ে মর্যাদার বিষয় হলো, তাদের ইমাম স্বয়ং রাসূল সা.।

 

📗 উক্ত বক্তব্যের জবাব

 

তাদের ইমাম যদি স্বয়ং রাসূল হবেন; রাসূল ব্যতীত অন্য কাউকে তারা ইমাম মানে না। তাহলে—

 

১. ইমাম ইবনে কাসীর রহ. স্বয়ং কাদের ইমাম? রাসূলকে ইমাম বলা কথিত মর্যাদাশীল আহলে হাদীসরা ইবনে কাসীরকে ইমাম বলে কেন? তাঁর নাম লিখতে গিয়ে সাথে ইমাম যুক্ত করে কেন? তার নাম মুখে উচ্চারণ করতে গিয়ে ইমাম সম্বোধন করে কেন? শুধু ইবনে কাসিরকে নয়, এভাবে বহুজনকেই তারা ইমাম স্বীকৃতি দিয়ে আসছে। তো এতজনকে ইমাম বলার কারণে কি ‘আহলে হাদিসের ইমাম স্বয়ং রাসূল’ এই সস্তা বুলিটা বাতিল হয়ে যায়নি? তবুও কি তাদের একমাত্র ইমাম স্বয়ং রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম?

 

২. আবার শাফে’ঈরা যে কিতাবের পাতায় পাতায় লিখে রেখেছে “আমাদের ইমাম শাফে’ঈ এমনটা বলেছেন।” আর সালাফী ও হাম্বলীরা যে বলে “আমাদের ইমাম আহমদ বিন হাম্বল এমনটা বলেছেন” তাদের কী হবে? তারাও কি রাসূলকে ইমাম মানার মর্যাদা থেকে বঞ্চিত হবে?

 

৩. আহলে হাদিসদের ইমাম যদি স্বয়ং রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম হতেন, তাহলে তারা রাসূলের নামের সাথে কখনো ইমাম শব্দ ব্যবহার করে না কেন? এভাবে বললে কেমন হয় যে?

 

قال امامنا محمد رسول الله صلى الله عليه وسلم

 

আমাদের ইমাম মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন। কৈ কেউ তো এমনটা বলে না!

 

কেউ রাসূলকে ইমাম সম্বোধন করতে রাজি নেই, অথচ দাবি করছে তাদের ইমাম! এর থেকে প্রতীয়মাণ হয় যে, আহলে হাদিসের পক্ষে যারাই বলে, কথার মধ্যে অসংলগ্নতা থেকেই যায়।

 

তো যাই হোক, কিছুক্ষণের জন্য মেনেই নিলাম যে, তাদের ইমাম স্বয়ং রাসূল। কিন্তু কিছু কথা—

 

✍️

অবাধ্য সন্তান নিজের বাবাকে বাবা সম্বোধন করে না আর অবাধ্য আহলে হাদিসরাও নিজেদের ইমামকে ইমাম সম্বোধন করে না। অর্থাৎ তারা কখনো ‘ইমাম মুহাম্মদ সা.’ বলে না। একমাত্র জারজ সন্তানেরাই বাবাকে বাবা সম্মোধন করতে লজ্জা পায়।

 

✍️

তাদের একাধিক বাবা। একদিকে রাসূলই তাদের ইমাম, অন্যদিকে আহমদ বিন হাম্বল, ইবনে কাসীর, ইবনে তাইমিয়া, শাওকানী সকলেই তাদের ইমাম। ইতিহাসের পাতায় পাতায় তাদের আরো কত যে ইমাম আছে তার কোনো ইয়ত্তা নেই! অতএব, রাসূলই তাদের ইমাম —এ কথাটার কোনো মূল্য থাকলো?

 

✍️

রাসূল নাকি তাদের ইমাম। অথচ রাসূলের নামের সাথে ‘ইমাম’ যুক্ত করে না। এদিকে ইবনে তাইমিয়্যাহ, শাওকানী প্রমুখের নামের সাথে ‘ইমাম’ যুক্ত করতে তারা ভোলেও না। এ যেন আপন বাপকে বাপ না ডেকে পাশের বাড়ির প্রতিবেশীকে বাপ ডাকা।

 

লুবাব হাসান সাফ‌ওয়ান

 


56
বিজ্ঞাপনঃ মিসির আলি সমগ্র ১: ১০০০ টাকা(১৪% ছাড়ে ৮৬০)

0

লুবাব হাসান সাফ‌ওয়ান

Author: লুবাব হাসান সাফ‌ওয়ান

লুবাব হাসান সাফ‌ওয়ান। ঠিকানা: নোয়াখালী। কর্ম: ছাত্র। পড়াশোনা: আল-ইফতা ওয়াল হাদীস [চলমান] প্রতিষ্ঠান: মাদরাসাতু ফায়দ্বিল 'উলূম নোয়াখালী।

নিচের লেখাগুলো আপনার পছন্দ হতে পারে

কবিতা আল কোরআনের প্রতীক আফছানা খানম অথৈ

আল কোরআনের প্রতীক আফছানা খানম অথৈ মা আমেনার গর্ভেতে জন্ম নিলো এক মহামানবের, নাম হলো তার মুহাম্মদ রাসুল আসলো ভবের

ফোরাত নদীতে স্বর্নের পাহাড় আফছানা খানম অথৈ

ফোরাত নদীতে স্বর্নের পাহাড় আফছানা খানম অথৈ ইমাম মাহাদী (আ:) আগমনের পূর্বে ফোরাত নদীর তীরে স্বর্নের পাহাড় ভেসে উঠা কেয়ামতের

কবিতা দাজ্জাল আফছানা খানম অথৈ

দাজ্জাল আফছানা খানম অথৈ কেয়ামতের পূর্বে দাজ্জাল আসবে নিজেকে খোদা বলে দাবি করবে, কাফের মুনাফিক যাবে তার দলে ঈমানদার মুমিন

গল্প হযরত মুহাম্মদ (সা:) জীবনের গল্প আফছানা খানম অথৈ

জন্ম:হযরত মুহাম্মদ (সা:) বর্তমান সৌদি আরবে অবস্থিত মক্কা নগরীর কুরাইশ গোত্রে বনি হাশিম বংশে ৫৭০ খৃষ্টাব্দে জন্ম গ্রহণ করেন।তার পিতার

Leave a Reply