সময়ের তরে – ভাস্কর পাল

0

সময়ের তরে

  • ভাস্কর পাল

কোন স্বপনে আসিয়াছিলে কোন সে দিনের প্রাতে

কোন ঋতুতে ফুটেছিল ফুল প্রেমের দলের সাথে।

কাগজ কালির যুদ্ধ চলিত, ভোরে উঠতো খাতা

জীবনের সব মুহূর্ত গড়ে কঠিন কঠিন ধাঁধা।।

 

বয়ে চলিছে কোন সে পথে সাদা মেঘের সজ্জা

মৃদু বাতাস নাড়া দেয় আমার মনের দজ্জা।

ঐ দূরেতে কৃষ্ণচূড়া, বাজায় বাঁশি রাখাল ছোড়া

ভেসে আসে মধুর সুরে, কৃষ্ণচূড়া পড়ছে ঝোরে।।

 

হৃদয়ের শব্দ বেঁধেছে স্বপ্ন, কাকলী সুরের গান,,

পুঞ্জে পুঞ্জে ফুটেছে পলাশ, এসেছে বসন্ত কাল।

টকটকে লাল রক্তিম বর্ণে পলাশ বনের মাঝে

প্রেমের ছোঁয়ায় বসন্তের রঙে গোপন স্বপ্ন সাজে।।

 

বসন্ত মানেই কত শত ফুল, সঙ্গে পাখির কুজন

বসন্ত মানেই নিঝুম-দুপুরে অলস মেঘলা মন।

কত অবহেলা এই বসন্তে কত না কান্না-ঝরায়

বসন্তের রং হৃদয় মাঝে প্রেমের দোলা দোলায়।।

 

বসিয়া ছিলাম চিলেকোঠাতে আকাশ পানে চেয়ে,

অম্র মুকুলের মেঠো গন্ধ বাতাসে আসছে ভেসে।

আমার মনেতে মেঘ জমেছে, জমেছে কথার পাহাড়

পাখির দল ফিরছে বাসায়, খুঁজে তাদের আহার।।

 

কাহারও তরে দিন গুনছি, দিবস রজনী কাহারে খুঁজি,

কাহার জন্য বাঁধিয়া রেখেছি, কাব্য শত বন্দি করে!!

কোন সে দিনের পথে হারিয়ে গেছে আমার হতে-

কত বসন্ত পেরিয়ে এসে, আজও আমার হৃদয়ে গেঁথে।।

 

কোকিল ডাকে কোন সে গাছে, কোন গগনে বাতাস বয়,

তাহারে লয়ে কত না কথ্য পাতার আড়ালে বন্দি হয়!!

দ্রুত কাটছে সময় কত, সময়ের তরে সবই ভ্রান্ত,,

বিরহের সেই নিশি রাতে বসন্ত প্রেম উন্মুক্ত।।

 

গল্প বাঁধে মনের গোপনে শব্দরা আজ করে খেলা,

সময়ের তরে শব্দরা সব কবিতা বাঁধে ছন্দ ছাড়া।

সময় শেখায় পথ চলতে একলা রাখতে হৃদয়টাকে,

একলা রাতের অন্ধকার হৃদয় মাঝে নেমে আসে।।

 

কাটছে ঋতু কাটছে বছর, ভ্রান্ত সময় উদভ্রান্ততায়

সময়ের তরে কত না স্বপ্ন ভিড়ের মাঝে হারিয়ে যায়।

প্রতি ভালোবাসার মূল্য খানি সময়ের তরে প্রকাশ পায়

কিছু ভালোবাসা সময়ের তরে হারিয়ে গিয়েও বেঁচে রয়।।

 


আরো পড়ুন-


 


Screenshot 3
বিজ্ঞাপনঃ বই কিনুন, বই পড়ুন

0

ভাস্কর পাল

Author: ভাস্কর পাল

আমার নাম ভাস্কর পাল। জন্ম পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ব্যারাকপুর অঞ্চলে। ছোটো থেকে মায়ের হাত ধরে বিদ্যালয়ের পত্রিকায় কবিতা লেখা শুরু। বিভিন্ন যৌথ বই এবং পত্রিকায় অনেক কবিতা প্রকাশিত হয়েছে। তাছাড়া ২০২২ সালে নিজের একটি একক কবিতার বই 'ফুলঙ্গিনী' প্রকাশিত হয়েছে।

নিচের লেখাগুলো আপনার পছন্দ হতে পারে

জানোয়ার ( ৭)

মানুষ যদি মানুষ না হত? সে জানোয়ার হত।কারন? জানোয়ারের চা'র ঠ্যাং।একদিন এক জানোয়ার গেল মাঠে, গিয়ে দেখল  এক জানোয়ার শুয়ে

ভিক্টোরিয়া পার্ক

ভিক্টোরিয়া পার্কে কি হয়? সবাই প্রেম করে, একজন আরেকজনের গলা জড়িয়ে ধরে। জড়িয়ে ধরে কি কয়? তুমি আমার হও, তুমি

কাবার ইমাম ক্ষুব্ধ

[ez-toc]কাবার ইমাম ক্ষুব্ধ মোঃ রুহুল আমিন কাবার ইমাম ক্ষুব্ধ আজি কেনো জানেন ভাই? কাবায় এসে হাজিরা সব ছবি তোলছে তাই।

স্বাধীনতার ঘ্রাণ

স্বাধীনতার ঘ্রাণ মোঃ রুহুল আমিন স্বাধীনতা এলো বাংলায় দীর্ঘ নয় মাস পর॥ নয়টি মাসে কতো মায়ের শূন্য হইলো ঘর! পাক

Leave a Reply